অভয়নগরে আত্মহত্যা প্ররোচনার অভিযোগে ৩ জনের বিরুদ্ধে মামলা

mamla rai

যশোর অভয়নগরের বাগদাহ গ্রামের ইমরান মোল্যা আত্মহত্যা প্ররোচনার অভিযোগে স্ত্রীসহ তিনজনকে আসামি করে যশোর আদালতে মামলা হয়েছে।

সোমবার ইমরান মোল্যার পিতা হালিম মোল্যা বাদী হয়ে এ মামলা করেছেন। আসামিরা হলেন নিহতের স্ত্রী অভয়নগরের বাহিরঘাট গ্রামের সালমা বেগম, তার বাবা ইনামুল বিশ্বাস ও মা সেলিনা বেগম।

মামলার অভিযোগে বাদী উল্লেখ করেন, ইমরান মোল্যা আট বছর আগে পারিবারিক ভাবে সালমা বেগমকে বিয়ে করেন। তাদের একটি পুত্র সন্তান রয়েছে। সালমা প্রায় তার স্বামীর কাছ থেকে টাকা নিয়ে অপর দুই আসামিকে দিতেন।

ইমরান টাকা দিতে অস্বীকার করায় সালমা তার ছেলেকে রেখে পিতার বাড়ি চলে যায়। ২০২১ সালের ২২ মে সালমা তার স্বামী ইমরান মোল্যাকে তালাক দেয়।

কিছুদিন যেতে না যেতে সালমা মোবাইলে ইমরানের সাথে যোগাযোগ শুরু করে বিয়ের প্রস্তাব দেয়। এসময় সালমার মা ও পিতা তার নামে ১০ শতক জমি অথবা ২ লাখ টাকা দিতে বলে।

ইমরান আবারও সালমাকে বিয়ে করে নওয়াপাড়ায় ভাড়া বাড়িতে বসবাস শুরু করেন। ইমরান গত বছরের অক্টোবর মাসে গরু বিক্রি করে তার স্ত্রী সালমাকে ৬০ হাজার টাকা দেয়।

সালমা এ টাকা নিয়ে তার পিতা বাড়ি চলে যেয়ে ইমরানের সাথে যোগাযোগ বন্ধ করে দেয়। চলতি বছরের ১০ জানুয়ারি সালমা তার স্বামীকে ফোন করে ১০ হাজার টাকা দিয়ে যেতে বলেন।

ইমরান তার ছেলেকে সাথে নিয়ে সালমাকে আনতে যায়। সালমা টাকা নিয়ে ইরানের সাথে বাড়ি আসতে রাজি হয় না। এনিয়ে কথাকাটাকাটির একপর্যায়ে আসামিরা ইমরানকে কীটনাশকের বোতল দিয়ে খেয়ে আত্মহত্যা করতে বলে গালিগালাজ করে।

ইমরান তাদের সামনে কীটনাশক পান করে ছেলেকে সাথে নিয়ে বাড়ি চলে আসে। বাড়িতে এসে ইমরান অসুস্থ্য হয়ে পড়লে প্রথমে তাকে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স ও পরে খুলনা মেডিকেলে ভর্তি করা হলে চিকিৎসাধীন অবস্থায় ১১ জানুয়ারি মারা যায়। বিষয়টি নিয়ে আদালতে মামলা করেন।

Source link

admin

Read Previous

মুসলিম হওয়ায় মন্ত্রিত্ব যাওয়া নিয়ে তদন্তের দাবি যুক্তরাজ্যে

Read Next

বেসরকারি শিক্ষকদের ১৮০ কার্যদিবসের বেশি বরখাস্ত নয়