কীটনাশক খেয়ে মা-ছেলের আত্মহত্যা

body

নওগাঁর মহাদেবপুরে বাড়িতে রাখা কীটনাশক পান করে মা ও ছেলের আত্মহত্যার ঘটনা ঘটেছে। বৃহস্পতিবার দুপুরে উপজেলার কলাবাগান এলাকায় এই ঘটনা ঘটে। তারা হলেন শেফালী রানী মন্ডল (৫০) ও তার ছেলে সুজন কুমার মন্ডল (২৪)। মৃতরা ওই এলাকার বাসিন্দা ব্যবসায়ী বীরেন্দ্রনাথ মন্ডলের স্ত্রী ও ছেলে।

পুলিশ জানায়, বেলা ১১টার দিকে উপজেলা সদরের কলাবাগান এলাকার বাসিন্দা বীরেন্দ্রনাথ মন্ডল বীরেনের স্ত্রী শেফালী রানী মন্ডল (৫০) ও তার ছেলে সুজন কুমার মন্ডল (২৪) নিজ বাড়িতে রাখা ধানের জমিতে দেয়া কীটনাশক পান করে অসুস্থ হয়ে পড়েন। তাদের গুরুতর অসুস্থ অবস্থায় উপজেলার স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নেয়া হয়।

সেখানে তাদের অবস্থার অবনতি হলে নওগাঁ সদর হাসপাতালে স্থানান্তর করা হয়। নওগাঁ সদর হাসপাতালে নেয়ার পথে দুপুর সাড়ে ১২টার দিকে শেফালী রানী মারা যান। তার কিছুক্ষণ পর সুজন কুমার মারা যান।

তবে কী কারণে মা-ছেলে কীটনাশক পানে আত্মহত্যা করেছেন তার প্রকৃত কারণ জানা যায়নি। পারিবারিক কলহে তারা আত্মহত্যা করেছেন বলে এলাকার একাধিক সূত্রে জানা গেছে। এ ব্যাপারে বীরেন্দ্রনাথ মন্ডল বলেন, আমার বলার কিছু নেই। তারা কি কারণে আত্মহত্যা করলো আমি নিজেই বুঝতে পারছি না।

ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে মহাদেবপুর থানার অফিসার ইনচার্জ আজম উদ্দিন মাহমুদ জানান, মা-ছেলের মৃত্যুর বিষয়টি খতিয়ে দেখা হচ্ছে। ময়না তদন্তের জন্য মরদেহ দুটি নওগাঁ সদর হাসপাতালের মর্গে পাঠানো হয়েছে। এ ব্যাপারে থানায় অস্বাভাবিক মামলা করা হয়েছে।

Source link

admin

Read Previous

রোজিনা ইসলামের নিঃশর্ত মুক্তি চাই

Read Next

আবারো সুখবর দিলেন মিথিলা