চৌগাছায় বৃদ্ধাকে হত্যার অভিযোগে আদালতে মামলা

mamla rai

যশোর চৌগাছার কংশারীপুর গ্রামের গুরুতর অসুস্থ্য বৃদ্ধাকে আকষ্মিক উত্তেজনা ঘঠিয়ে হত্যার অভিযোগে পাঁচ জনকে আসামি করে আদালতে মামলা হয়েছে।

রোববার বেসিক ব্যাংক যশোর শাখার কর্মকর্তা শাহনেওয়াজ হোসেন বাদী হয়ে এ মামলা করেছেন।

আসামিরা হলো শহরতলীর চাঁচড়া জেলেপাড়ার মোহাম্মদ আলীর মেয়ে সাথী আক্তার, ছেলে আলম হোসেন, ছেলের বৌ বধূ তন্মী বেগম ও স্ত্রী নুরজাহান বেগম এবং জাগরণী চক্র ফাউন্ডেশন আরবপুর শাখার ম্যানেজার ইউসুফ হোসেন।

সিনিয়র জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতের বিচারক অভিযোগটি গ্রহণ করে পিবিআইকে তদন্ত করে প্রতিবেদন জমা দেয়ার আদেশ দিয়েছেন।

মামলার অভিযোগে জানা গেছে, শাহনেওয়াজ হোসেন বিবাহিত এবং এক সন্তানের জনক। ব্যাংকে চাকরির সুবাদে আসামি সাথী আক্তারের সাথে শাহনেওয়াজ হোসেনের পরিচয়।

মাঝে মধ্যে মোবাইল ফোনে কথা বলতেন। গত ৩ ফেব্রুয়ারি আসামি সাথী আক্তার ফোন করে শাহনেওয়াজকে তার ফুফুর বাসায় যেতে বলেন।

রাত ৮ দিকে তিনি শহরের ষষ্টীতলাপাড়ার নয়ন মৃধাকে সাথে নিয়ে ওই বাসায় যান। পূর্বপরিকল্পনা অনুযায়ী আসামিরা ওই ওই বাসায় আগেই উপস্থিত ছিলেন।

শাহনেওয়াজকে আসামিরা আটকে সাথীর সাথে বিয়ে দিয়ে দেন। শাহনেওয়াজ এ বিয়ে মেনে না নেয়ায় আসামিরা চাপ সৃষ্টি করে অর্থ আদায় করে। গত ১৩ আগস্ট সকালে আসামিরা শাহনেওয়াজের গ্রামের বাড়ি চৌগাছার কংশরীপুর গ্রামে বাড়ি যেয়ে ১০ লাখ টাকা দাবি করেন।

বাড়িতে থাকা গুরুতর অসুস্থ্য বাইপাস সার্জারি করা মার সাথে ঝগড়া বিবাদে লিপ্ত হয়। একপর্যায়ে সাথী খাতুন তার বৃদ্ধ মায়ের গায়ে হাত তোলেন।

এ সময় তিনি গুরুতর অসুস্থ্য হয়ে পড়লে চৌগাছা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হলে মারা যান। আসামিরা জেনে বুঝে গুরুতর অসুস্থ্য মাকে আকষ্মিক উত্তেজন ঘটিয়ে হত্যার অভিযোগে তিনি আদালতে এ মামলা করেছেন।

Source link

admin

Read Previous

গণমাধ্যম ও গণতন্ত্র আজ বন্দি: খন্দকার মোশাররফ

Read Next

নিজ ফ্ল্যাট থেকে নায়িকার লাশ উদ্ধার