প্রতিষ্ঠাবার্ষিকীতে বিএনপির এক দিনের কর্মসূচি ঘোষণা

bnp logo

আগামী ১ সেপ্টেম্বর দলের ৪৩তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উপলক্ষে এক দিনের কর্মসূচি ঘোষণা করেছে বিএনপি।

ওইদিন সকাল ৬টায় নয়াপল্টন কেন্দ্রীয় কার্যালয়সহ সারাদেশে দলীয় কার্যালয়ে দলীয় পতাকা উত্তোলন, সকাল ১১টায় শেরেবাংলা নগরে দলের প্রতিষ্ঠাতা জিয়াউর রহমানের কবরে শ্রদ্ধা নিবেদন, করোনা হেল্প ক্যাম্প ও করোনা রোগীর জন্য সহায়তা দেওয়া হবে।

দিবসটি উপলক্ষে ভার্চুয়ালি আলোচনা সভার আয়োজন করা হবে। মঙ্গলবার নয়াপল্টনে বিএনপির কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে এক সংবাদ সম্মেলনে দলের কেন্দ্রীয় দপ্তরের দায়িত্বপ্রাপ্ত সাংগঠনিক সম্পাদক সৈয়দ এমরান সালেহ প্রিন্স এ কর্মসূচি ঘোষণা করেন।

তিনি জানান, প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উপলক্ষে দলের পক্ষ থেকে পোস্টার প্রকাশ করা হয়েছে। প্রতিটি জেলা ও থানা ইউনিটকেও আলোচনা সভাসহ বিভিন্ন কর্মসূচি পালনের মাধ্যমে যথাযোগ্য মর্যাদার সঙ্গে প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী পালনের জন্য বলা হয়েছে বলে জানান প্রিন্স।

১৯৭৮ সালের ১ সেপ্টেম্বর তৎকালীন রাষ্ট্রপতি জিয়াউর রহমান জাতীয়তাবাদী দল-বিএনপি প্রতিষ্ঠা করেন।সংবাদ সম্মেলনে সৈয়দ এমরান সালেহ প্রিন্স অভিযোগ করেন, বিএনপির বিরুদ্ধে প্রতিদিন চিরাচরিত মিথ্যাচারের ভাঙা রেকর্ড বাজিয়ে বিষোদ্গার করাই হচ্ছে আওয়ামী লীগের মূল এজেন্ডা।

তারা শুধু দুর্নীতি-দুঃশাসন, লুটপাট আর অর্থ পাচার নয়, মিথ্যাচারেও সমান পারদর্শী। আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের বলেছেন, বিএনপি হত্যার রাজনীতির উত্তরাধিকার বহন করছে। আমরা তাকে স্মরণ করিয়ে দিতে চাই, হত্যার রাজনীতি শুরু হয়েছিল স্বাধীনতা-পরবর্তী আওয়ামী লীগের আমলেই।

সিরাজ সিকদারকে হত্যাসহ স্বাধীনতা-পরবর্তী বাংলাদেশে রক্ষীবাহিনী সৃষ্টি করে অগণিত মুক্তিযোদ্ধা, বিরোধী দলের নেতাকর্মীসহ সাধারণ মানুষকে হত্যার ইতিহাস এ দেশের জনগণের মানসপট থেকে বিলীন হয়ে যায়নি।

তিনি বলেন, প্রধানমন্ত্রী ও আওয়ামী লীগ সভানেত্রীর গুডবুকে থাকতে এখন আওয়ামী নেতা-মন্ত্রীরা মিথ্যাচারের প্রতিযোগিতায় নেমেছেন। এখন জিয়াউর রহমানের হত্যাকাণ্ডের সঙ্গে খালেদা জিয়ার সম্পর্ক আবিষ্কার করে নতুন আষাঢ়ে গল্প ফেঁদেছেন, যা গোয়েবলসকেও হার মানায়।

নতুন করে আবার ২১ আগস্ট নিয়ে আওয়ামী লীগের শীর্ষ পর্যায় থেকে মিথ্যাচার শুরু হয়েছে। বরিশালের সংঘটিত ঘটনার প্রসঙ্গ টেনে প্রিন্স বলেন, বরিশালের ঘটনা সারাদেশে আওয়ামী দুর্বৃত্তায়নের ক্ষুদ্রাংশ মাত্র।

অথচ ৩০ ডিসেম্বর দিনের ভোট আগের রাতে অনুষ্ঠিত করা হয়েছিল এই অনুগত প্রশাসনের মাধ্যমেই। এখন তারা নিজেরা নিজেদের মধ্যে দ্বন্দ্ব-সংঘাতে জড়িয়ে পড়েছে। এ সময় বিএনপির সহ-সাংগঠনিক সম্পাদক আবদুস সালাম আজাদ, শহীদুল ইসলাম বাবুল প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

Source link

admin

Read Previous

রাতে দেশে ফিরছেন সাকিব

Read Next

বিমান ছিনতাই হওয়ার খবর অস্বীকার করেছে ইউক্রেন